ওসি প্রদীপের স্ত্রী চুমকির সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ

ডেস্ক রিপোর্ট ◑ টেকনাফের সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশের স্ত্রী চুমকি কারণের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় উল্লেখ থাকা সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ রোববার চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমান এ নির্দেশ দেন।

দুদকের আইনজীবী কাজী সানোয়ার হোসেন বলেন, ‘চুমকি কারণের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার এফআইআরে উল্লেখ করা সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।’

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদক চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক রিয়াজ উদ্দিন বলেন, ‘আমরা জানতে পেরেছিলাম আসামিরা এসব সম্পত্তি সরানোর চেষ্টা করছিলেন। তাই আদালতের কাছে সম্পত্তি ক্রোকের আবেদন করেছিলাম।’

গত ২৩ আগস্ট টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকির বিরুদ্ধে তিন কোটি ৯৫ লাখ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-১ এ মামলাটি দায়ের করেন দুদকের সহকারী পরিচালক রিয়াজ উদ্দিন।

তখন দুদক কর্মকর্তা রিয়াজ উদ্দিন দ্য ডেইলি স্টারকে বলেছিলেন, ‘সাবেক ওসি প্রদীপ ও তার স্ত্রী চুমকি তাদের আয়কর বিবরণীতে ১৩ লাখ ১৩ হাজার টাকার তথ্য গোপন করেছেন এবং ঘুষ ও দুর্নীতির মাধ্যমে ৩ কোটি ৯৫ লাখ টাকার সম্পদ অর্জন করেছেন। অনুসন্ধানে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ও দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে মামলা করা হয়েছে।’