বিছানায় গৃহবধূর লাশ, স্বামী,শ্বশুর- শ্বাশুড়ি পলাতক

পেকুয়া প্রতিনিধি :

যৌতুকের দাবীতে কক্সবাজারের পেকুয়ায় হুরে জন্নাত (১৮) নামের এক গৃহবধূকে পিটিয়ে ও বালিশ চাপা দিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। হুরে জান্নাতের মৃতদেহ বিছানায় রেখেই বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে তার স্বামী ও শ্বশুর শ্বাশুড়ি।

শুক্রবার দুপুরে উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম উজানটিয়া পাড়া এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ।
নিহত গৃহবধূ পেকুয়া উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম উজানটিয়া পাড়া এলাকার মোঃ রিফাতের স্ত্রী ও পেকুয়া সদর ইউনিয়নের মছিন্যাকাটা ৭নং ওয়ার্ডের মৌলভী আবু বক্করের মেয়ে।

নিহতের বাবা মৌলভী আবু বক্কর বলেন, দেড় বছর আগে আমার মেয়ের সঙ্গে রিফাতের বিয়ে হয়। তার ঘরে পাঁচ মাস বয়সী একজন মেয়ে আছে। বিয়ের পর থেকে স্বামী রিফাত যৌতুকের জন্য হুরি জান্নাতকে মারধর করতো। সন্তান-সংসারের কথা চিন্তা করে এ নিয়ে বেশ কয়েকবার মেয়ের শ্বশুড়বাড়িতে স্থানীয়ভাবে সালিশ হয়েছে। কিন্তু তাঁদের চাহিদা মতো যৌতুক দিতে না পারায় আমার মেয়েরে ওপর নির্যাতন বন্ধ হয়নি।

এরই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার রাতে আমার মেয়েকে আবারও মারধর করে স্বামী রিফাতও তাঁর পরিবারের সদস্যরা। মারধরের এক পর্যায়ে বালিশ চাপা দিয়ে আমার মেয়েকে হত্যা করা হয়। পরে লাশ ঘরে রেখে সকলেই পালিয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন, প্রতিবেশী মারফত মেয়েকে মারধরের খবর পেয়ে মেয়ের বাড়ি আসি। এসে দেখি আমার মেয়েকে হত্যা করেছে ওরা।

নিহতের বাবা আরো বলেন, আমার মেয়ের সমস্ত শরীরে আঘাতের চিহ্ন রযেছে। তার হাত পা, পিঠ কালচে বরন ধারন করেছে।

পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মুহাম্মদ আলী বলেন, খবর পেয়ে গৃহবধূ হুরে জান্নাতের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রয়েছে। নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এই ঘটনার সাথে জড়িতদের ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে।