ইউএনওকে ‘আপা’ বলায় মার খেলেন স্বর্ণ ব্যবসায়ী

ডেস্ক রিপোর্ট •

মানিকগঞ্জের সিংগাইরের ইউএনও রুনা লায়লাকে ‘স্যার’ না বলে ‘আপা’ সম্বোধন করায় তপন চন্দ্র দাশ নামে এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে লাঠিপেটা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালতের সঙ্গে থাকা এক আনসার সদস্য।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই উপজেলার ধল্লা ইউনিয়নের জায়গীর বাজারে এ ঘটনা ঘটে। মারধরের শিকার তপন চন্দ্র দাশ একই উপজেলার জয়মন্টপ গ্রামের গুরু চন্দ্র দাশের ছেলে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেলে জায়গীর বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন ইউএনও রুনা লায়লা। ওই সময় দোকান খোলা রাখায় প্রিতম জুয়েলার্সের মালিক তপন চন্দ্র দাশ ও একাধিক ক্রেতাকে জরিমানা করেন তিনি। এক পর্যায়ে ইউএনওকে ‘আপা’ বলে ক্ষমা চান তপন। ওই সময় ইউএনও রুনা লায়লার সঙ্গে থাকা এক আনসার সদস্য তাকে লাঠি দিয়ে পেটান।

ভুক্তভোগী তপন চন্দ্র দাশ বলেন, লকডাউনের শুরু থেকেই আমার দোকান বন্ধ ছিল। ক্রেতাদের পূর্বের অর্ডারকৃত স্বর্ণালংকার ডেলিভারি দিতে দোকান খুলেছিলাম। ওই সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত এসে দুই হাজার টাকা জরিমানা করে। আমি জরিমানা পরিশোধ করে ক্ষমা চাই। এরপর কিছু বুঝে ওঠার আগেই ইউএনওর সঙ্গে থাকা এক আনসার সদস্য আমাকে লাঠি দিয়ে পেটায়।

জানতে চাইলে সিঙ্গাইরের ইউএনও রুনা লায়লা বলেন, কাউকে মারধর করা হয়নি। ওই দোকানে অনেক লোকের সমাগম থাকায় মালিক ও ক্রেতাদের জরিমানা করে দোকান বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

মানিকগঞ্জের জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ বলেন, সিনিয়র অফিসাররা এরকম করতে পারেন না। বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।