উখিয়ার ভূমিদস্যু নুরুল হক মুন্সি আটক, জনমনে স্বস্তি

বিশেষ প্রতিবেদক :

উখিয়া থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে উখিয়া সদরের কুখ্যাত ভূমিদস্যু নুরুল হক মুন্সিকে অবশেষে পুলিশ আটক করে কক্সবাজার জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

উক্ত ভূমিদস্যু গ্রেফতারের খবরে এলাকার নিরীহ লোকজনের মাঝে স্বস্তি বিরাজ করছে। উখিয়া সদরের জনৈক মোঃ ইসহাকের পৈত্রিক জমিতে রাতে অন্ধকারে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে জবর দখল করে ঘেরাবেড়া দেওয়ার সময় রোববার দিবাগত রাতে উক্ত ভূমিদস্যুকে উখিয়া থানার পুলিশ গ্রেফতার করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

উক্ত ভূমিদস্যুর বিরুদ্ধে উখিয়া থানা ও কক্সবাজারের বিভিন্ন আদালতে একাধিক মামলা রয়েছে বলেও খবর পাওয়া গেছে।

অভিযোগে জানা যায় উখিয়া সদরের রাজাপালং গ্রামের মোঃ ইসহাকের মালিকানাধীন মালভিটা পাড়া এলাকায় জমিতে সে দীর্ঘদিন ধরে ভোগ দখল করে আসছে। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে উক্ত ভূমিদস্যু একই এলাকার মৃত জালাল আহমদের ছেলে নুরুল হক মুন্সি মোঃ ইসহাকের জমি জবর দখলের পায়তারা করে আসছে। স্কুল শিক্ষক মোঃ ইসহাক এ ঘটনায় উখিয়া থানায় ভূমিদস্যু নুরুল হক মুন্সি সহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে তার জমি জবর দখল ও স্থাপনা লুট করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ আনে। অভিযোগ খানা সত্যতা তদন্ত করে উখিয়া থানা পুলিশ গত বৃহস্পতিবার উক্ত ভূমিদস্যু নরুল হক মুন্সি সহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।

এ ঘটনায় নুরুল হক মুন্সি তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের নিয়ে রোববার দিবাগত রাতে মোঃ ইসহাকের জমি জবর দখল করা কালে উখিয়া থানার পুলিশ অভিযান চালিয়ে উক্ত কুখ্যত ভূমিদস্যু নুরুল হক মুন্সিকে আটক করেছে। গতকাল দুপুরে উক্ত ভূমিদস্যুকে উখিয়া থানা পুলিশ কক্সবাজার জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

উল্লেখ্য বিগত ২০১০ সালে রত্নাপালং ইউনিয়নের জনৈক হাজী আমির হোছেনের ক্রয় সূত্রে মালিকানাধীন উখিয়া সদরের একটি এক তলা পাকা ভবন সহ উক্ত ভূমিদস্যু জবর দখল করে রেখেছে বলে অভিযোগ রয়েছে। তা ছাড়াও জনৈক কবির আহমদের মালিকানাধীন প্রায় কোটি টাকার জমি উখিয়া সদরে উক্ত ভূমিদস্যু জবর দখলেরর অভিযোগ রয়েছে। তার গ্রেফতারের খবর এলাকার নিরহ লোকজনের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

এব্যাপারে জানতে চাইলে উখিয়া থানার ওসি মোঃআবুল খায়ের জানান,জায়গা দখলের ঘটনায় নুরুল হক মুন্সিকে আটক করে জেল হাজতেতে প্রেরণ করা হয়েছে।