সহকর্মীর বিদায়: ১০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে বাড়ি পৌঁছে দিলেন ওসি

অনলাইন ডেস্ক •

যেতে নাহি দিবো, তবু যেতে দিতে হয়। তবে বিদায় বেলা সহকর্মী ও সিনিয়র অফিসারদের কাছ থেকে প্রাপ্য সম্মানটুকু পেলে অবসর জীবনের বাকি সময় চাকরি জীবনের শেষ স্মৃতি হিসেবে মনের মনি কোঠায় ধরে রাখা যায়।

তেমনি এক সদ্য অবসরে যাওয়া সহকর্মীর বিদায়ী সংবর্ধনার আয়োজন করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সাড়া ফেলেছেন শিবচর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী।

এ মানবিক পুলিশ কর্মকর্তা এর আগেও হাইওয়ে থানা কম্পাউন্ড পরিষ্কার করে সবজি বাগান করে সুনাম কুড়ান। এ ছাড়া চলমান লকডাউনে নিজের বেতনের টাকা দিয়ে সাধ্যমত অসহায় মানুষদের খাদ্যসামগ্রী ও অর্থ সহায়তা করে পাশে দাঁড়িয়েছেন।

শিবচর হাইওয়ে থানা সূত্রে জানা যায়, হাইওয়ে পুলিশ মাদারীপুর রিজিয়নের শিবচর হাইওয়ে থানার কনস্টেবল লিয়াকত আলী এর চাকরি শেষ করে গত শনিবার (৪ জুলাই) পিআরএল গমন করেন। কনস্টেবল লিয়াকত আলী পিআরএল গমনের দিন উপলক্ষে শিবচর হাইওয়ে থানায় আয়োজন করা হয় এক বিদায়ী সংবর্ধনা ও প্রীতিভোজ। যা ছিল হাইওয়ে পুলিশ বিভাগের এক ব্যাতিক্রম অনুষ্ঠান।

সকাল ১১ টায় আলোচনায় কনস্টেবল লিয়াকত আলী তার চাকরি জীবনে স্মৃতিচারণ করেন। অন্যান্য সহকর্মী ও সিনিয়র অফিসরা বক্তব্য দেন। সংবর্ধিত বিদায়ী কনস্টেবল লিয়াকত আলীকে ফুল ও ক্রেস্ট দিয়ে সম্মান জানান শিবচর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী।

দুপুরে প্রীতিভোজের জন্য বিশেষ ভাবে রান্না করা খাবার সবাই মিলে এক টেবিলে খান। পরে বেলা সাড়ে তিনটার দিকে থানার কম্পাউন্ডে রক্ষিত একটি সুসজ্জিত গাড়িতে কনস্টেবল লিয়াকত আলীকে তুলে বিদায় জানান সকল সহকর্মী ও সিনিয়র অফিসার এবং শিবচর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী।

কনস্টেবল লিয়াকত আলী সাথে করে ঐ গাড়িতে করে শিবচর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী এসপির অনুমতি নিয়ে ১০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর নিজ বাড়িতে পৌঁছে দিয়ে আসেন।

এ ব্যাপারে শিবচর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী বলেন, আজ আমি আছি, কাল অবসরে যাবো। তাই সবাই একে অপরকে সম্মানের সহিত বিদায় জানানো দরকার। এতে নিজ প্রতিষ্ঠান ও সদস্যদের প্রতি গর্ববোধ ও ভালোবাসা সৃষ্টি হয়।